স্বাধীনতা তুমি কোথায়?

২৬ মার্চ – স্বাধীনতা দিবস। এবার ৩ লক্ষ মানুষ একই সাথে জাতীয় সঙ্গীত গেয়ে বিশ্ব রেকর্ড গড়বে। ব্যাপারটা দু’টি ফ্যাক্ট এর উপর মূল্যায়ন করা যায়।

১। অনেক বন্ধুরা জানালেন তাদের কে বাধ্যতামূলক যেতে হবে। যেমন তিতুমিরের কয়েকজন বন্ধু জানালেন।
এখন কথা হচ্ছে, ১৬ কোটি বাংলাদেশীর মধ্যে ৩ লাখ মানুষ কি নেই? যারা সেচ্ছায় এই অনুষ্ঠানে যেয়ে বিশ্ব রেকর্ড গড়তে ইচ্ছুক?

২। বিভিন্য প্রতিষ্ঠান এই কর্মসুচী সফল করার জন্য ৩০ কোটির ও বেশি টাকা অনুদান দিয়েছে সরকারকে। ৩ লাখ মানুষে জনপ্রতি খরচ ১০০০ (এক হাজার টাকা) করে। প্রায় সব ভার্সিটি যাতায়াতের ব্যাবস্থা সহ আরো অন্যান্য সুবিধা দিচ্ছে।
এখন কথা হচ্ছে, ১৬ কোটি বাংলাদেশীর মধ্যে ৩ লাখ মানুষ কি নেই, যারা দেশ প্রেমের টানে সেচ্ছায় অবস্থান নিত কোন সুযোগ সুবিধা ছাড়াই?

উত্তর হচ্ছে, “আছে” এবং “অবশ্যই আছে”, আমি নিজেকে তাদেরই একজন মনে করি। কিন্তু দেশপ্রেম যে নতুন ভাবে সঙ্গায়ীত হয়ে গেছে এখন। এই নিয়ে আজকে তেনা প্যাচানোর ইচ্ছা নাই। আমার ও ইচ্ছা ছিল যাওয়ার, কিন্তু স্বাধীন ভাবে। যেখানে কিছু পরাধীন ছাত্রদের ধরে এনে গান গাওয়ানো হবে, যেখানে কিছু মানুষ টাকার বিনিময়ে বা সার্টিফিকেট এর লোভে গান গাবে, সেখানে আমি নাই। আমার দেশপ্রেম সেখানে যেতে আমাকে প্রেরণা দেয় না বরং … আর কথা বাড়ালাম না।

লাবিব ইত্তিহাদুল

Leave a Reply