Democrazy

অনুগল্পঃ ইনুপ্রজাতন্ত্রী বাকশাল (রম্য)

সকাল সকাল ঘুম ভেঙ্গে গেল। সাধারণত ফজরের পর থেকে দুপুর পর্যন্ত ঘুমাই আমি। ঘুম ভাঙ্গার কারণ আমার ছোট ভাই। সকালে ঘুড়ি বানিয়ে দেয়ার কথা ছিল তাকে। তাই সকাল ৭টার দিকেই দরজায় ধুরুম ধুরুম। ঘুমিয়ে থাকার কোন ব্যাবস্থা নাই। আধা ঘন্টা লাগলো ঘুড্ডি বানাতে, লাটাই সুতা আগেই রেডী ছিল।

সাত সকালে মিষ্টি রোদে ঘুড্ডি উড়াতে দূর্দান্ত লাগচ্ছিল। পাল্লা চলচ্ছিল আমার আর ছোট ভাই এর মধ্যে। কাটাকাটির পাল্লা না, কার ঘুড়ি কত বেশি উড়ে এই নিয়ে। আমার নীল ঘুড়ি ছোট ভাই এর টা লাল। ৪ তলার ছাদের পাশে গাছ না থাকায় খুব মজা পাচ্ছিলাম।

হঠাত পুলিশের গাড়ির সাইরেনের শব্দ পেয়ে নিচে তাকালাম। দেখি আমার বাসার গেটের সামনে একটা পুলিশ পিকয়াপ। কিছু বুঝে উঠার আগেই ছাদে পুলিশ হাজির। এসেই আমার দিকে পিস্তল তাক করে বলে, “হেন্ডস আপ, ইউ আর আন্ডার এরেষ্ট”। আমি নাটাই সহ দুই হাত উপরে তুলে ধরলাম। এক কনস্টেবল এসে আমার নাটাই টা কেড়ে নিল।

গুন্ডা কিছিমের পুলিশটা আমাকে জিজ্ঞাসা করল, ঘুড্ডি উড়াইতাছস, আইন জানস?
আমিঃ কিসের আইন?
পুলিশঃ ঘুড্ডি উড়ানের আইন।
আমিঃ না আঙ্কেল, জানি না তো। কখনো শুনি নাই।
পুলিশঃ জানস না ভালো, এখন থানায় চল।
আমিঃ কেন আঙ্কেল?
পুলিশঃ তোর ঘুড্ডী ট্রাফিক আইনের ১৫ বাই ৮ নাম্বার ধারা ভঙ্গ করছে।
আমিঃ বিশ্বাস করেন আঙ্কেল, ঘুড্ডির যে ট্রাফিক আইন আছে আমি জানতাম না।
পুলিশঃ তার মানে তুই অপরাধ স্বীকার করতাছস, এখন ৫০০০ ট্যাকা দে।
এত টাকা আমি কোথায় পাব?
তোর গার্ডিয়ান রে ডাক…

যাই হোক, অবশেষে আব্বু এসে কিছু নগদ টাকার বিনিময়ে আমাকে ছাড়িয়ে নিলেন।

এই ছিল ইনুপ্রজাতন্ত্রী বাকশাল নামক এক স্বাধীন রাষ্ট্রের একটি ঘটনা। যেইভাবে গ্রেফতার বানিজ্য চলতেছে, এই ঘটনা বাংলাদেশ নামক রাষ্ট্রেও যে কোনদিন ঘটতে পারে।

৪৫৭৭ টি সর্বমোট হিট ২ টি আজকের হিট

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *